• ২০২২ Jul ০২, শনিবার, ১৪২৯ আষাঢ় ১৮
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৭:০৭ পূর্বাহ্ন
English
পরিচালনাপর্ষদ
আমাদের সাথে থাকুন আপনি ও ... www.timebanglanews.com

জয়পুরহাটের কালাই মান্দাই গ্রামের রাস্তার কাজে বাঁধা।

  • প্রকাশিত ১১:০৭ পূর্বাহ্ন শনিবার, Jul ০২, ২০২২
জয়পুরহাটের কালাই  মান্দাই গ্রামের রাস্তার কাজে বাঁধা।
টাইমবাংলা নিউজ
আঃ রাজ্জাক, জয়পুরহাট জেলা প্রতিনিধিঃ

জয়পুরহাটের কালাই উপজেলার উদয়পুর  ইউনিয়নের মান্দাই গ্রামের রাস্তার কাজে বাঁধা প্রদানের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল শনিবার স্থানীয় গ্রাম বাসীদের অভিযোগে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়। মান্দাই গ্রামের আনছার আলী ও কাশেম আলী মন্ডল রাস্তার কাজে বাঁধা প্রধান করে। এবং গ্রামবাসীদের বিভিন্ন ভাবে হুমকি প্রদান করে বলেন আমার জায়গায় দিয়ে রাস্তা দিব না। কেউ যদি জোর জুলুম করে করেন তাহলে রাস্তার ইট,বালু কিছুই থাকবে না।



 এ বিষয়ে কালাই উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মিনফুজুর রহমান মিলন বলেন রাস্তার কাজে স্থানীয় কিছু লোকজন বাঁধা দেয় বলে আমি শুনেছি এবং আমি স্থানীয় নেতৃবৃন্দ কে বলেছি যে এগুলো পারিবারিক ভাবে বসে মিটিয়ে রাস্তার কাজ করেন।আশা করি খুব দ্রুত তম সময়ে এগুলো বসে সমাধান হয়ে যাবে ও রাস্তার কাজ শেষ হবে। 



স্থানীয় রবিউল ইসলাম, শামীম রেজা,সামাদ সহ একাধিক ব্যক্তি অভিযোগ করে বলেন আনসার আলী ও কাশেম আলী মন্ডল এলাকার একজন জঘন্য ঘৃণিত ব্যক্তি তারা নিরীহ গ্রামবাসীর উপর চড়াও হয় এবং মারপিট করা সহ বিভিন্ন হুমকি দিয়ে যাচ্ছে।, সরকারী কাজে বাধা দেওয়ায় আমরা  প্রতিবাদ করলে আনসার  আমাদের ধমক দেয়  এই আনসার গ্রামের প্রত্রেকটা ভালো কাজে বাধা দেয় তারা মামলা বাজ ও মাদক সম্ররাট পরিবার  তার ছোট ভাই মেয়েন এখনো মাদক মামলায়  কারা গারে আছে এখন আমরা  চরম হতাশা গ্রস্ত গ্রামের রাস্থা সকলের প্রযজন শান্তি পূর্ন ভাবে চলাচল করতে পারি কেউ যেনো  রাস্থার কাজে বাধা প্রদান করতে না পারে


 এ বিষয়ে আনসার আলী বলেন রাস্তা হোক আমরাও চাই কিন্তু ওখানে আমার ভগ্নিপতির আনারুলের  বাড়ি আছে সেই বাড়ির ড্রেন রাস্তা দিয়ে দিতে হবে না হলে রাস্তাটি আমি হতে দিব না,যদি জোর জুলুম করে গ্রামবাসী রাস্তা করেন তাহলে রাস্তার ইট,বালু কিছুই থাকবে না।

অভিযোগের  বিষয়ে   কালাই থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুঈন উদ্দীন বলেন  ,এখন পর্যন্ত অভিযোগ পাওয়ার পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে সাথে সাথেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে৷

সর্বশেষ