• ২০২২ অক্টোবর ০৩, সোমবার, ১৪২৯ আশ্বিন ১৮
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:১০ পূর্বাহ্ন
English
পরিচালনাপর্ষদ
আমাদের সাথে থাকুন আপনি ও ... www.timebanglanews.com

অর্থনীতির নতুন দিন আনবে পদ্মা সেতু

  • প্রকাশিত ১১:১০ পূর্বাহ্ন সোমবার, অক্টোবর ০৩, ২০২২
অর্থনীতির নতুন দিন আনবে পদ্মা সেতু
ছবি সংগ্রহীত
এ,কে,সুমন- নিজস্ব প্রতিবেদক

পদ্মা সেতু চালুর মধ্য দিয়ে শুধু যোগাযোগই নয়, খুলছে অর্থনৈতিক সম্ভাবনার নতুন দুয়ার। নতুন নতুন শিল্প ও সেবাখাতে বিনিয়োগে পিছিয়ে থাকা জনপদে আসবে কর্মসংস্থানের জোয়ার। সংশ্লিষ্ট এলাকার পাশাপাশি জাতীয় পর্যায়েও কমবে দারিদ্রের হার। উল্লেখযোগ্য হারে বাড়বে দেশজ উৎপাদন। কয়েক বছরে জিডিপি বাড়তে পারে দুই শতাংশ পর্যন্ত।

বেনাপোল স্থলবন্দর। ভারতের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যের বড় অংশই হয় এ পথে। রাজস্বের পরিমাণ প্রায় ৬ হাজার কোটি টাকা।

ঢাকার সাথে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া রুটে ফেরির বদলে পদ্মা সেতুর হয়ে গেলে বেনাপোলের দূরত্ব কমবে ৯৩ কিলোমিটার। সময় বাঁচবে ৩ থেকে ৪ ঘণ্টা। কমবে পরিবহন খরচ। তাই বাণিজ্য বৃদ্ধির সাথে স্থলবন্দরটির রাজস্ব দেড়গুণ হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

একইভাবে মোংলা-ভোমরা-পায়রা বন্দরের সঙ্গে ঢাকার যোগিাযোগ সহজ হওয়ায়, দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে শিল্পায়ন হবে দ্রুত। এতে কর্মসংস্থান হতে পারে সাড়ে ৭ লাখ মানুষের।

পদ্মার সড়ক ও রেলসেতুর সামগ্রিক প্রভাবে কয়েক বছরের মধ্যেই দেশের জিডিপি বাড়তে পারে দুই শতাংশের বেশি।

শুধু দেশের যোগাযোগ ব্যবস্থাই নয়, ট্রান্সএশিয়ান হাইওয়ের মাধ্যমে আঞ্চলিক যোগাযোগেও বড় ভূমিকা রাখবে পদ্মা সেতুু। দক্ষিণাঞ্চলের পর্যটনখাত, কৃষি ও ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পেও আসবে নতুনমাত্রা। বিনিয়োগের বিপরীতে পদ্মা সেতুর বার্ষিক রিটার্ন ধরা হচ্ছে ২২ শতাংশ পর্যন্ত।

উন্নত যোগাযোগে ভর করে আঞ্চলিক আয় বৈষম্য কমানোর পাশাপাশি ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত রাষ্ট্রের কাতারে পৌঁছানোর দৌড়ে পদ্মা সেতুর মতো মেগা প্রকল্প হাতে নেয়া সময়োপযোগী সিদ্ধান্ত বলেই মানছেন পর্যবেক্ষকরা।

সর্বশেষ