• ২০২৩ জানুয়ারী ৩১, মঙ্গলবার, ১৪২৯ মাঘ ১৮
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:০১ অপরাহ্ন
English
পরিচালনাপর্ষদ
আমাদের সাথে থাকুন আপনি ও ... www.timebanglanews.com

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায়,গাড়ির নিচে নারীকে টেনে নেওয়ায় মামলা, আসামি সেই চালক

  • প্রকাশিত ১০:০১ অপরাহ্ন মঙ্গলবার, জানুয়ারী ৩১, ২০২৩
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায়,গাড়ির নিচে নারীকে টেনে নেওয়ায় মামলা, আসামি সেই চালক
ছবি সংগ্রহীত
টাইমবাংলা নিউজ ডেস্কঃ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় প্রাইভেটকারের চাকায় পিষ্ট হয়ে রুবিনা আক্তারের মৃত্যুর ঘটনায় গতকাল শুক্রবার গভীর রাতে শাহবাগ থানায় মামলা করেছেন নিহতের ভাই জাকির হোসেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক মোহাম্মদ আজহার জাফর শাহকে আসামি করা হয়েছে। সড়ক পরিবহন আইনের ধারা ৯৮ ও ১০৫ ধারায় এ মামলা করা হয়।

শুক্রবার রাজধানীর তেজগাঁও থেকে দেবর নুরুল আমিনের মোটরসাইকেলের পেছনে বসে হাজারীবাগের দিকে যাচ্ছিলেন রুবিনা আক্তার। এসময় শাহবাগ মোড়ে একটি প্রাইভেটকার পেছন থেকে ধাক্কা দেয় মোটরসাইকেলটিকে। রুবিনার কাপড় পেঁচিয়ে যায় প্রাইভেট কারের সঙ্গে। সে অবস্থাতেই গাড়িটি চলতে থাকে নীলক্ষেত পর্যন্ত।

পথচারীরা সেই গাড়ি আটকে উদ্ধার করে রুবিনাকে। আহত অবস্থায় পাঠানো হয় ঢাকা মেডিকেলে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান রুবিনা।

নীলক্ষেত মোড় থেকে চালক জাফর শাহকে আটক করে পথচারীরা; করে মারধরও। নিজেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক বিভাগের শিক্ষক বলে পরিচয় দেন জাফর শাহ। তবে প্রক্টর জানান, নৈতিক স্থলনের জন্য তাকে অনেক আগেই চাকরিচ্যুত করা হয়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর এ কে এম গোলাম রব্বানী বলেন, আইআরের চাকুরিচ্যুত শিক্ষক জাফর শাহ। ০৭-০৮ সালের দিকে নৈতিক স্থলনজনিত কারণে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তাকে চাকুরিচ্যুত করা হয়। তার সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো সম্পর্ক নেই। নারী নিহতের ঘটনায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী আইনগত ব্যবস্থা নেবে বলে আশা করেন তিনি।

গাড়ি চালানোর সময়ে চালক নেশাগ্রস্থ ছিলেন কিনা তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

ডিএমপি রমনা বিভাগ উপ-পুলিশ কমিশনার মো. শহিদুল্লাহ বলেন, 'পুলিশের একটি দল ও পথচারীরা গাড়ির চালক আজহারকে ধাওয়া দিয়ে আটক করেন। এ সময় বিক্ষুব্ধ জনতা তাকে মারধর করেন। তিনি এখন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এ ঘটনায় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ ঘটনায় আহত দেবর নুরুল আমিন ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন।

সর্বশেষ