• ২০২১ অক্টোবর ২৭, বুধবার, ১৪২৮ কার্তিক ১২
  • সর্বশেষ আপডেট : ০২:১০ পূর্বাহ্ন
English
পরিচালনাপর্ষদ
আমাদের সাথে থাকুন আপনি ও ... www.timebanglanews.com

দাদন ব্যাবসয়ী আটক

  • প্রকাশিত ০৭:১০ পূর্বাহ্ন বুধবার, অক্টোবর ২৭, ২০২১
দাদন ব্যাবসয়ী  আটক
টাইমবাংলা নিউজ
মো: মিজানুর রহমান, পঞ্চগড় জেলা প্রতিনিধিঃ

পঞ্চগড় সদর উপজেলায় বাড়িতে অনৈতিক কর্মকান্ডে জড়িত থাকায় স্থানীয়দের হাতে নারী-পুরুষ আটক হয়েছে। পঞ্চগড় সদর উপজেলার মাগুড়া ইউনিয়নাধীন মালাদাম এলাকার মৃতঃ ইউসুফ আলীর কন্যা ও শ্রী পরেশ চন্দ্র রায় এর স্ত্রী মরিয়ম আক্তার মেরি ।  মাদক, দাদন ব্যবসায়ী এবং দেহ ব্যবসার সাথে জড়িত বলে অভিযোগ স্থানীয়দের। সে তার নিজ বাড়ীতে দীর্ঘ দিন যাবৎ জেলা এমনকি জেলার বাইরের বিভিন্ন এলাকা থেকে দেহ ব্যবসায়ী মহিলা ও খদ্দের নিয়ে এসে অনৈতিক কর্মকান্ড পরিচালনা করতে থাকে। ইতিপূর্বে কয়েকবার অনৈতিক কর্মকান্ড পরিচালনা করতে যেয়ে স্থানীয়দের হাতে ধরা পড়েছে সে। মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর )  রাতে ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটে।

স্থানীয় সূত্রেও সরেজমিনে গিয়ে  জানাযায়, মঙ্গলবার রাতে মেরী এর বাড়ীতে অনৈতিক কর্মকান্ডে লিপ্ত থাকা অবস্থায়  মৃতঃ কমিজ উদ্দীন, এর কন্যা মোছাঃ সাবিনা ইয়াসমিন, মন্ডলপাড়া, পার্বতীপুর, দিনাজপুর, ও মোঃ সাদেকুল ইসলাম এর  পুত্র মোঃ নাজমুল হোসেন (২৬),  এবং  মৃতঃ ইউসুফ আলী এর স্ত্রী হালিমা বেওয়া (৪৮), গেদিপাড়া, মালাদাম, মাগুড়া ও মোঃ মুজিবর রহমানের পুত্র মোঃ সিদ্দিকুর রহমান (২৪ ),  সাতখামার, আটোয়ারী, পঞ্চগড় কে  মেরীর দেহ ব্যবসা ঘরে হাতে নাতে ধরে ফেলেন এলাকাবাসী। পরে সদর থানায় খবর দিলে পুলিশ ঘটনা স্থলে এসে বাড়ী তল্লাশি করার সময় অন্য ঘরে আরো অপেক্ষায় থাকা দুই দেহ  খরিদ্দার সল্টু বর্মন এর পুত্র  কৃষাণ বর্মন ( ২৮),  ও রজনী কুমার এর পুত্র জয়ন্ত কুমার ( ২৬ )  নাঙ্গলগ্রাম, বোদা, পঞ্চগড় সহ ঐ বাড়ীর মালিক পরেশ চন্দ্র রায় ও মেরি মরিয়ম আক্তার মেরি এর রুমে থাকা ৫০০ গ্রাম গাঁজাসহ সকল আসামিদের গ্রেফতার করে সদর থানায় নিয়ে যান পুলিশ।এসময় স্থানীয়রা উল্লেখিত বলেন, মেরী প্রায়ই নিজ বাড়ীতে এধরনের ঘটনা ঘটায় বলে অভিযোগ করে বলেন, এভাবে চলতে থাকলে সমাজে অবক্ষা ও স্থানীয় উঠতি বয়সের তরুন-তরুনী সহ যুব সম্প্রদয় বিপদগামী হতে পারে। তাই এই চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী এবং দেহ ব্যবসায়ী মেরীকে আইনের আওতায় আনার অন্য সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষের কাছে অনুরোধ জানিয়েছেন।

এঘটনায় মাগুড়া ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আবুল কালাম আজাদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, বিষয়টি আমি শোনা মাত্রই সেখানে উপস্থিত হয়ে স্থানীয়দের মধ্যে থাকা উত্তেজনার পরিস্থিত নিয়ন্ত্রনে আনি। 

এ বিষয়ে পঞ্চগড় সদর থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল লতিফ মিয়া জানান, এ ঘটনায় খবর পাওয়া মাত্রই আমি সরজমিনে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনি এবং আসামিদের গ্রেপ্তার করি। আজ ২৯ ( সেপ্টেম্বর )  পরেশ চন্দ্র রায় ও মরিয়ম আক্তার মেরি এর

বিরুদ্ধে গাজা ৫০০ গ্রাম যার বাজার মূল্য ৫ হাজার টাকা  মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের ২০১৮ এর ৩৬ (১)  সারনিয় ১৯ এর ( ক) এবং  অসামাজিক কার্যকলাপ করার দায়ে ছয়জনকে পেনাল কোড আইনে ২৯০  ধারায়  নন এফআই আর প্রসিকিউশন দাখিল করা হয়েছে।

সর্বশেষ