• ২০২১ সেপ্টেম্বর ১৯, রবিবার, ১৪২৮ আশ্বিন ৪
  • সর্বশেষ আপডেট : ০১:০৯ পূর্বাহ্ন
English
পরিচালনাপর্ষদ
আমাদের সাথে থাকুন আপনি ও ... www.timebanglanews.com

পরীমনির বিলাসি জীবন সিনেমাকে হার মানায়

  • প্রকাশিত ০৭:০৯ পূর্বাহ্ন রবিবার, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০২১
পরীমনির বিলাসি জীবন সিনেমাকে হার মানায়
পরীমনির ছবি
নিজস্ব প্রতিবেদক

‘জীবন কোনো সিনেমা নয়’- এটি একটি বহুল প্রচলিত সংলাপ। অনেক সিনেমাতেই এ সংলাপ শোনা গেছে। কিন্তু কিছু কিছু জীবন আছে, যা দিয়ে অনায়াসে একটি সুপারহিট সিনেমা নির্মাণ করা সম্ভব। তারকাদের জীবনের গল্প নিয়ে অনেক সিনেমা নির্মাণও হয়েছে। আমাদের দেশের সিনে তারকাদের মধ্যেও এমন অনেকে আছেন, যাদের বাস্তব জীবন সিনেমাকেও হার মানায়।


জীবনের ব্যাখ্যা দিয়েছেন ঢাকাই সিনেমার আলোচিত নায়িকা পরীমণি। বাস্তব জীবনে স্পষ্টবাদী হিসেবে পরীর বিশেষ খ‌্যাতি রয়েছে। সাহসী নারী হিসেবে বেশ পরিচিত। জীবন নিয়ে সাহসী ব্যাখ্যাও দিয়েছেন। তার মতে— ‘জীবনতো একটাই, বাঁচলে বাঘের মতো, জীবনের পুরোটা উপভোগ করাই তো জীবন।’ জীবন আসলে রংধনুর মতো। সময় পরিবর্তনের মতো জীবনের রং পরিবর্তন হয়, পরিবর্তন হয় অনুভূতি। ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় নায়িকা পরীমণির জীবন উপলব্ধি একটু ভিন্ন রকম। তার ভাবনাও যুদ্ধের ময়দানের আকাশের মতো। যুদ্ধ করে বেঁচে থাকাটাই পরীর কাছে জীবনের স্বার্থকতা। জটিলতাকে মোকাবিলা করে সরল বাক্যে পরিণত করার নাম জীবন— জীবনের বাস্তবতা। হাতের মুঠোয় এই বাস্তবতা নিয়েই জনপ্রিয় এই নায়িকার পথ চলা। পরীমণি সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ সরব। নিজের কাজ ও ব্যক্তিগত জীবনের ছবি নিয়মিত পোস্ট করার পাশাপাশি নিজের অনুভূতির কথাও লিখে জানান। বৃহস্পতিবার একটি ছবি পোস্ট করে তিনি তার জীবন উপলব্ধি প্রকাশ করেন— ‘জীবন হলো আইসক্রিমের মতো! কামড়ে খাওয়ার তাড়া থাকতে নেই। এতে স্বাদ অনুভব হয় না, শুধু খাওয়াটাই হয়। স্বাদ পেতে হলে চেটেই খাও।

তোমার ঠোঁট, জিভ, দাঁত, গলা, চিবুক আর তোমার পাকস্থলীকে টের পেতে দাও এর হিম! জীবনও তাই, শুধু সুখটুকুতে এর বিস্বাদ ধরে। তাই তাকেও এর কান্না, দুঃখ, হতাশা, আনন্দ, বেদনা, ভালোবাসা সবটাই দিও। জীবনের পুরোটা উপভোগ করাই তো জীবন।’

সময়ের সবচেয়ে আলোচিত-সমালোচিত চিত্রনায়িকা তিনি। যদিও বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি তার সদস্যপদ স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নিচ্ছে বলে শোনা যাচ্ছে। তার জীবনের প্রতিটি বাঁকই সিনেমা। এখন পর্যন্ত তার জীবনে সবই আছে, যা একজন গল্পকার লিখতে চাইবেন। প্রেম, বিরহ, রহস্য, উত্থান ও পতনের দুর্দান্ত এক চরিত্র এই পরীমনি।

১৯৯২ সালে এক নিম্নমধ্যবিত্ত পরিবারে জন্ম নেওয়া পরীর মতো মেয়েটির নাম রাখা হয় শামসুন্নাহার স্মৃতি। মাত্র তিন বছর বয়সে মা সালমা সুলতানাকে হারান তিনি। আগুনে দগ্ধ হয়ে মারা গিয়েছিলেন তার মা। মা হারা মেয়েকে বাবা মনিরুল ইসলাম রেখে আসেন তার নানাবাড়ি পিরোজপুরে। নাতনিকে বড় করার দায়িত্ব নেন নানা শামসুল হক গাজী। পিরোজপুরের স্থানীয় স্কুল-কলেজ থেকে মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক শেষ করেন। জানা গেছে, পড়াশোনা চলাকালেই বিয়ে হয় পরীর। যা প্রকাশও হয়েছিল কয়েক বছর আগে গণমাধ্যমে। কিন্তু তিনি সেটি অস্বীকার করেন। বিয়ে হয়েছিল এক কাজিনের সঙ্গে, প্রেমের বিয়ে। টেকেনি বেশিদিন। সংসার জীবনের ইতি টেনে ২০১১ সালে সাতক্ষীরা সরকারি কলেজে বাংলা বিভাগে বিএ (সম্মান) ভর্তি হয়েছিলেন।

পড়াশোনা শেষ না করেই মডেল এবং নায়িকা হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে চলে আসেন ঢাকায়। শুরুতে পরীমনি তার বাবাকে নিয়ে সাভারের ব্যাংক টাউনে বাসা ভাড়া করে থাকতেন। কিন্তু ২০১২ সালে ঘটে দুর্ঘটনা। ওই বছরের ২১ জানুয়ারি সিলেটে তার বাবার গুলিবিদ্ধ লাশ পাওয়া যায়। কেন খুন হয়েছিলেন মনিরুল ইসলাম, সেই রহস্য উদ্ঘাটন হয়নি। সাভারে থাকাকালে পরী নাচ শিখতে শুরু করেন বুলবুল ললিতকলা একাডেমিতে (বাফা)। বাবাকে হারানোর পর সাভারে এক খালার বাসায় থেকে শোবিজে কাজ করার চেষ্টা করতে থাকেন। মডেলিংয়ের মাধ্যমে পা রাখেন বিনোদন অঙ্গনে। তখন তিনি বিভিন্ন অনুষ্ঠানে নাচতেন।

অভিনয়ে সুযোগ আসে ২০১৪ সালে। ‘সেকেন্ড ইনিংস’ নামের একটি নাটকে অভিনয়ের মাধ্যমে। যেটি সে সময় এসএ টিভিতে প্রচার হয়েছিল। এই নাটকে তার মায়ের চরিত্রে ছিলেন অভিনেত্রী চম্পা। এই অভিনেত্রীই তাকে সিনেমায় কাজ করার উৎসাহ দেন। চলচ্চিত্রে আসার আগে ‘এক্সক্লুসিভ’, ‘এক্সট্রা ব্যাচেলর’, ‘নারী’ নামের নাটকগুলোতে কাজ করেন। প্রথম প্রধান চরিত্র করেন ‘নবনীতা তোমার জন্য’ নাটকে।

পরীকে প্রথম সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ করেন শাহ আলম মণ্ডল। জায়েদ খান ও আনিসুর রহমান মিলনদের সঙ্গে ‘ভালোবাসা সীমাহীন’ সিনেমা দিয়ে বড়পর্দায় অভিষিক্ত হন তিনি। ২০১৫ সালে মুক্তি পায় এটি। একটি ছবিতে কাজ শুরু করতে না করতেই একসঙ্গে ২৩টি সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ হয়ে আলোচনায় চলে আসেন! ছবি মুক্তির আগেই গণমাধ্যমে নানা রকম খবরে আসতে থাকে তার নাম। তখনই নিজেকে নিয়ে যান আভিজাত্য আর জৌলুসময় রঙিন জীবনে। ৩০টির মতো সিনেমার একটিতেও সাফল্য না পাওয়া পরীর রহস্যময় বিলাসবহুল জীবনযাপন নিয়ে কানাঘুষা চলতে থাকে। তবে আলোচনায় আসেন ‘রানা প্লাজা’ ছবিটিতে চুক্তিবদ্ধ হয়ে। ২০১৮ সালে গিয়াসউদ্দিন সেলিমের ‘স্বপ্নজাল’ ছবিতে তার অভিনয় সাধারণ দর্শকের পাশাপাশি সমালোচকের প্রশংসা লাভ করে।

প্রথাবহির্ভূত জীবনযাপনের জন্য পরীমনিকে নিয়ে সাধারণ সমাজে নানা রকম আলোচনা-সমালোচনা শুরু হয়। ২০১৮ সালে এক সাংবাদিকের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। পরের বছর ১৪ ফেব্রুয়ারি তাদের বাগদান হয়। পরে সেই সম্পর্ক ভেঙে যায়। ২০২০ সালের ৯ মার্চ তিন টাকা দেনমোহরে পরিচালক কামরুজ্জামান রনিকে বিয়ে করে হইচই ফেলে দেন। সেই বিয়েও বেশি দিন স্থায়ী হয়নি। ১০ লাখ টাকার মানহানি মামলার আলোচিত ঘটনারও জন্ম দিয়েছেন এই নায়িকা।

তিনি ছিলেন সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক পাওয়া নায়িকাদের একজন। বিজ্ঞাপনে কাজ করেছেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় ছিলেন তুমুল জনপ্রিয়। ফোর্বস ম্যাগাজিনে জায়গা করে নিয়েছিলেন এশিয়ার সেরা প্রভাবশালী তরুণ তারকা হিসেবে। দাতব্য কাজের জন্য পরীমনির সুখ্যাতি আছে। অল্প আয়ের শিল্পীদের জন্য এফডিসিতে কোরবানির আয়োজন করে সাড়া ফেলে দেন তিনি। এমন এক আলোচিত জীবনের বর্তমান পরিণতি মাদককাণ্ড।

সর্বশেষ