• ২০২১ এপ্রিল ১৭, শনিবার, ১৪২৮ বৈশাখ ৩
  • সর্বশেষ আপডেট : ০১:০৪ পূর্বাহ্ন
English

করোনাভাইরাস নিয়ে ডব্লিউএইচওর দলকে সব তথ্য দেয়নি চীন: মহাপরিচালক

  • প্রকাশিত ০১:০৪ পূর্বাহ্ন শনিবার, এপ্রিল ১৭, ২০২১
করোনাভাইরাস নিয়ে ডব্লিউএইচওর দলকে সব তথ্য দেয়নি চীন: মহাপরিচালক

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

 করোনাভাইরাসের উৎস অনুসন্ধানে গবেষণার জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) যে দলটি চীনে গিয়েছিল তাদেরকে এ মহামারী নিয়ে সব তথ্য দেওয়া হয়নি বলে জানিয়েছেন ডব্লিউএইচওর মহাপরিচালক তেদ্রোস আধানম গ্যাব্রিয়াসুস।

২০১৯ ‍সালের শেষের দিকে চীনের উহান শহর থেকে সারা বিশ্বে কোভিড-১৯ মহামারী ছড়িয়ে পড়ে। ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে প্রথম শনাক্ত হওয়ার এক বা দুই মাস আগে থেকে এটি ছড়ানো শুরু হয়েছিল বলে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার একটি খসড়া রিপোর্টে বলা হয়েছিল।

ঠিক কোথা থেকে এ রোগ মানবদেহে প্রবেশ করেছে তা জানতে ডব্লিউএইচও-র স্বাধীন গবেষকদের একটি দল গত জানুয়ারিতে চীনে যায় এবং চার সপ্তাহ ধরে উহানের ভেতরে ও চারপাশে অনুসন্ধান চালায়। চীন তাদেরকে একেবারে প্রাথমিক তথ্য (র ডেটা) দেয়নি বলে জানান ডব্লিউএইচও-র মহাপরিচালক।

যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং অন্যান্য পশ্চিমা দেশ চীনকে দ্রুত ডব্লিউএইচও-র গবেষক দলকে সব জায়গায় স্বাধীনভাবে অনুসন্ধান চালানোর এবং সব তথ্য প্রদানের আহ্বান জানিয়েছে।

ডব্লিউএইচও-র চূড়ান্ত প্রতিবেদনে বলা হয়, খুব সম্ভবত ভাইরাসটি বাদুড় থেকে অন্য প্রাণী হয়ে মানব দেহে প্রবেশ করেছ। সেখানে আরো বলা হয় গবেষণাগার থেকে ভাইরাস ছড়ানোর সম্ভাবনা ‘খুবই কম’।

চীনের বিজ্ঞানী এবং ডব্লিউএইচও নেতৃত্বাধীন দল যৌথভাবে এই প্রতিবেদন তৈরি করেছে। তবে ডব্লিউএইচও দলের একজন এরই মধ্যে বলেছেন, চীন কোভিড-১৯ শনাক্তের একেবারে শুরুর দিকের প্রাথমিক তথ্য তাদের দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে। যে কারণে, কিভাবে এই মহামারী বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে তা বুঝতে পারা তাদের জন্য অনেক বেশি জটিল হয়ে পড়ছে।

মঙ্গলবার তেদ্রোস বলেন, ‘‘দলের সঙ্গে আমার আলাপ হয়েছে। তারা বলেছেন, তারা প্রাথমিক তথ্য পাওয়ার ক্ষেত্রে বেশ অসুবিধার সম্মুখীন হয়েছেন।

‘‘আমি ভবিষ্যতে আরো সময় নিয়ে আরো বিস্তৃত তথ্য বিনিময়ের মাধ্যমে আরো সহযোগিতামূল গবেষণা দেখতে চাই।”

সর্বশেষ